মেডিকেল ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২৩

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ, ১৩ ফেব্রুয়ারি আবেদন শুরু। আবেদন গ্রহণ শেষ হবে ২৩ ফেব্রুয়ারি।

 

এসএসসি ও এইচএসসি মিলিয়ে জিপিএ-৯ পাওয়া শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশ নিতে আবেদন করতে পারবে।

নম্বর. ৫৯.১৪.০০০০.১০৩.৩১.০০১.২৩.২০৮
os.
02.
08.
০৫.
০৬.
০৭.
০৮.
০৯.
১০.
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর
মহাখালী, ঢাকা-১২১২
www.dgme.gov.bd
২০২২-২০২৩ শিক্ষাবর্ষে এমবিবিএস কোর্সে ভর্তিবিজ্ঞপ্তি
(সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজের জন্য প্রযোজ্য)
তারিখ: ০৯-০২-২০২৩ খ্রি.

বাংলাদেশ মেডিকেল এন্ড ডেন্টাল কাউন্সিল’ কর্তৃক প্রণীত ভর্তি নীতিমালা- ২০২৩ অনুযায়ী অনলাইনে নির্ধারিত ছকে আবেদন করতে হবে।

 

আবেদনকারীকে বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।

(ক) ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীকে ২০২২ সনে এইচএসসি/‘এ’ লেভেল/সমমান ও ২০২০ সনে এসএসসি/‘ও’
লেভেল/সমমান অথবা ২০২১ সনে এইচএসসি/‘এ’ লেভেল/সমমান ও ২০১৯ সনে এসএসসি/‘ও’ লেভেল/সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। তবে শর্ত থাকে
যে, এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় পাশের পূর্ববর্তী ০২ (দুই) বছরের মধ্যে এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় পাশ হতে হবে।
(খ) এসএসসি/ ‘ও’লেভেল/সমমান পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগ এবং এইচএসসি/ ‘এ’ লেভেল/সমমান পরীক্ষায় জীববিজ্ঞান, পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়নসহ উত্তীর্ণ
ছাত্র/ছাত্রীরা আবেদনের যোগ্য বিবেচিত হবেন।
এসএসসি/সমমান এবং এইচএসসি/সমমান দুটি পরীক্ষায় মোট জিপিএ কমপক্ষে ৯.০০ হতে হবে।
উপজাতীয় ও পার্বত্য জেলার অ-উপজাতীয় প্রার্থীদের ক্ষেত্রে এসএসসি/সমমান এবং এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় মোট জিপিএ কমপক্ষে ৮.০০ হতে হবে।
তবে এককভাবে কোনো পরীক্ষায় জিপিএ ৩.৫০ এর কম হলে আবেদনের যোগ্য বলে বিবেচিত হবে না।
সকলের জন্যে এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় জীববিজ্ঞানে (Biology) ন্যূনতম গ্রেড পয়েন্ট ৪.০ না থাকলে আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে।
১০০ (একশত) নম্বরের ১০০ (একশত)টি এমসিকিউ প্রশ্নের ১ (এক) ঘন্টার লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। লিখিত পরীক্ষায় বিষয় ভিত্তিক নম্বর বিন্যাস :
জীববিজ্ঞান ৩০; রসায়নবিদ্যা ২৫; পদার্থবিদ্যা ২০; ইংরেজি ১৫; সাধারণ জ্ঞান (বাংলাদেশের ইতিহাস ও মুক্তিযুদ্ধ) ১০। লিখিত পরীক্ষায় প্রতিটি ভুল উত্তর
প্রদানের জন্য ০.২৫ নম্বর কাটা হবে। লিখিত পরীক্ষায় ৪০ নম্বরের কম নম্বর প্রাপ্তরা অকৃতকার্য বলে গণ্য হবেন। ভর্তিযোগ্য পরীক্ষার্থীদের মেধা তালিকাসহ
ফল প্রকাশ করা হবে।

 

এসএসসি ও এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ মোট ২০০ নম্বর হিসেবে নির্ধারণ করে নিম্নলিখিতভাবে মূল্যায়ন করা হবে:
ক) এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ এর ১৫ গুণ = ৭৫ নম্বর (সর্বোচ্চ)
খ) এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত জিপিএ এর ২৫ গুণ = ১২৫ নম্বর (সর্বোচ্চ)

 

লিখিত ভর্তি পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর এবং অনুচ্ছেদ ০৭-এ বর্ণিত পদ্ধতিতে এসএসসি/সমমান ও এইচএসসি/সমমান পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বরের যোগফলের ভিত্তিতে
মেধা তালিকা প্রণয়ন করা হবে।

 

পূর্ববর্তী বছরের এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের সর্বমোট (Aggregated) নম্বর থেকে ০৫ (পাঁচ) নম্বর বাদ দিয়ে এবং পূর্ববর্তী বছরের সরকারি
মেডিকেল কলেজ বা ডেন্টাল কলেজ/ইউনিট এ ভর্তিকৃত ছাত্র/ছাত্রীদের ক্ষেত্রে মোট প্রাপ্ত নম্বর থেকে ৮.০ (আট) নম্বর বাদ দিয়ে মেধা তালিকা তৈরি করা
হবে।

 

অনলাইনে আবেদন পুরণ করার সময় নির্দেশাবলি www.dgme.gov.bd ও www.dghs.gov.bd ভালোভাবে পড়ে বুঝে নির্দেশনা অনুযায়ী সতর্কতার
সাথে পূরণ করতে হবে। পরীক্ষা ফি ১০০০/- (এক হাজার) টাকা শুধু প্রি-পেইড টেলিটকের মাধ্যমে জমা দিতে হবে।
অনলাইনে আবেদন শুরুর তারিখ
12.
অনলাইনে আবেদনের শেষ তারিখ
১৩.
অনলাইনে আবেদনের ফি জমাদানের শেষ তারিখ
১৪.
প্রবেশ পত্র বিতরণ (সংগ্রহ)
15.
ভর্তি পরীক্ষার তারিখ
১৬.
১৭.
১৮.
: ১৩-০২-২০২৩ খ্রি., সোমবার (দুপুর ১২.০০ টা)
: 23-02-2023 খ্রি., বৃহস্পতিবার (রাত ১১:৫৯ মি.)
: ২৪-০২-২০২৩ খ্রি. শুক্রবার (রাত ১১.৫৯ মি.
)
: ০৬-০৩-২০২৩ খ্রি., সোমবার হতে 07-03-2023 খ্রি., মঙ্গলবার পর্যন্ত
: ১০-০৩-২০২৩ খ্রি. শুক্রবার, সকাল ১০.০০ টা হতে ১১.০০ টা পর্যন্ত
MBBS ভর্তির জন্য Online ফরম পূরণের নিয়মাবলি ও ভর্তি সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের ওয়েব সাইট
www.mefwd.gov.bd, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েব সাইট www.dgme.gov.bd, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ওয়েব সাইট www.dghs.gov.bd ও
http://dgme.teletalk.com.bd হতে জানা যাবে।
আবেদনপত্র প্রক্রিয়াকরণ, নিরীক্ষণ, উত্তরপত্র মূল্যায়ন, ফলাফল চূড়ান্তকরণ এবং পূনঃনিরীক্ষণ ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় সম্পন্ন করা হবে। উত্তরপত্র
“ওএমআর/আইসিআর” (OMR/ICR) মেশিনে পরীক্ষা করা হবে।
বাংলাদেশি নাগরিক যারা বিদেশি শিক্ষা (O-Level/A-Level) কার্যক্রমে এসএসসি/এইচএসসি এর সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ তাদের মার্কশীট সমূহ
বাংলাদেশে প্রচলিত জিপিএতে রূপান্তর করে Equivalence Certificate সংগ্রহ করার পর অনলাইনে আবেদন করতে পারবে। সেক্ষেত্রে তাদেরকে
পরিচালক, চিকিৎসা শিক্ষা, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর, মহাখালী, ঢাকা বরাবরে ২০০০/- (দুই হাজার) টাকার ব্যাংক ড্রাফ্ট/পে-অর্ডারসহ আবেদন (স্বাস্থ্য শিক্ষা
অধিদপ্তরের মেডিকেল এডুকেশন শাখার কক্ষ নং ২০৪) করে Equivalence Certificate সংগ্রহ করার সময় ID নম্বর নিতে হবে। Equivalence
Certificate সংগ্রহ করার জন্য এসএসসি ও এইচএসসি এর সমমান পরীক্ষার মূল নম্বরপত্র ও সনদপত্র এবং নম্বরপত্র ও সনদপত্র সমূহের প্রদানকারী কর্তৃপক্ষ
কর্তৃক সত্যায়িত কপি সাথে আনতে হবে।

Similar Posts