করোনাভাইরাস (কোভিট-১৯) কি এবং এর লক্ষন গুলো কি?Caronavirus (Covit-19) and what are the symptoms?

করোনাভাইরাস এবং কোভিট-১৯ কি?-

কারোনা ভাইরাস কি?

করোনা ভাইরাস হলো ভাইরাসের একটি বড় পরিবার যা মানুষ বা জীব জন্তুর অসুখের কারন হতে পারে। এটি সাধারণত মানুষের ঠান্ডা লাগা থেকে শুরু করে এমইআরএস এবং এসএআরএস এর মতো মারাত্মক রোগে পরিণত হয় বলে জানা গেছে। এখানে আরেকটি প্রশ্ন কোভিট-১৯ কি? কোভিট-১৯ হচ্ছে করোনাভাইরাসের মধ্যে নতুন খুজে পাওয়া আরেকটি সংক্রামক রোগ। এই ভাইরাসটি ২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে চীনের উহান শহরে পাওয়া যায় এবং সারা বিশ্বে মহামারি রুপ ধারণ করে। তাই এর নাম কোভিট-১৯।

করোনাভাইরাস বা কোভিট-১৯ কিভাবে ছড়ায়?

সাধারণত এই ভাইরাস টা যেভাবে ছড়ায়: কোভিট-১৯ এ আক্রান্ত কোন ব্যাক্তির সংস্পর্শে এই ভাইরাস ছড়ায়। কোভিট-১৯ এ আক্রান্ত ব্যাক্তির হাঁচি বা কাশি থেকে বের হওয়া পানির ফোটা থেকেও এই রোগ ছড়ায়। এই পানির ফোটা চারপাশের জিনিস গুলোতে লেগে থাকে। কেউ যদি এই গুলিতে স্পর্শ এবং তার চোখ মুখে ও নাকে হাত দেয় তবে তারও আক্রান্ত হবার ঝুঁকি রয়েছে। তাই আক্রান্ত ব্যাক্তি থেকে ৩ ফুট/ ১ মিটার দূরে থাকা অত্যন্ত জরুরি। এখন প্রশ্ন হচ্ছে কোভিট-১৯ কি বাতাসের মাধ্যমে ছড়ায়? এ পর্যন্ত গবেষণা থেকে জানা গেছে কোভিট-১৯ ভাইরাসটি বাতাসের মাধ্যমে ছড়ায় না। যদি আক্রান্ত ব্যাক্তির হাচি কাশি বা নিঃশ্বাস থেকে বের হওয়া পানির ফোটা কারো শরিলে ঢোকে তাহলে তা কোভিট-১৯ হতে পারে। অনেক সময় দেখা যায় কোভিট-১৯ এ আক্রান্ত ব্যাক্তি কোন প্রকার অসুস্থ বোধ করেন না। কেবল অল্প কাশি আছে, এমন ব্যাক্তির কাছ থেকেও কোভিট-১৯ এ আক্রান্ত হতে পারে।

কোভিট-১৯ এর লক্ষন গুলো কি

কোভিট-১৯ এর সাধারণ লক্ষনগুলো হলো: জ্বর, ঠান্ডা, শুকনো কাশি ইত্যাদি। অনেকের আবার গলা ব্যথা, শরিল ব্যথা, নাক দিয়ে পানি আসা বা ডায়রিয়াও হতে পারে। এই লক্ষনগুলো শুরুতে কম থাকে কিন্তু ধীরে ধীরে বাড়তেই থাকে। কোভিট-১৯ এ আক্রান্তদের মধ্যে আবার অনেকের এসব কিছুই থাকে না। তাদের মধ্যে কোন লক্ষন দেখা যায় না তারা অসুস্থও বোধ করে না। প্রায় ৮০% লোক বিশেষ চিকিৎসা ছাড়াই সুস্থ হয়ে উঠেন। কোভিট-১৯ হওয়া প্রত্যেক ৬ জনের মধ্যে ১ জন ভীষনভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং তাদের শ্বাস নিতে অসুবিধা হয়। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তাদের কে বাচানো যায় না। কোভিট-১৯ বয়স্ক ব্যাক্তি, যাদের উচ্চ রক্ত চাপ, হার্টের সমস্যা বা ডাইবেটিসের মতো অসুস্থতা রয়েছে তাদের জন্য ঝু্ঁকিটা বেশি এবং তারাই বেশি অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাই এসব মানুষের খুব দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

কোভিট-১৯ কোন জিনিসের উপর কতক্ষন বেঁচে থাকে?

কোভিট-১৯ যেকোন করোনা ভাইরাস গুলির মতো আচরন করে বলে মনে করা হয়। গবেষনায় দেখা গেছে করোনা ভাইরাস বা কোভিট-১৯ ভাইরাস কয়েক ঘন্টা বা কয়েকদিন পর্যন্ত যেকোন জিনিসের উপর টিকে থাকতে পারে। এটি একেক পরিস্থিতি তে একেক রকম হতে পারে। যেমন: জিনিসটির ধরন, তাপমাত্রা বা আবহাওয়ার আদ্রতা ইত্যাদি। আপনার যদি মনে হয় যে কোন জিনিসে এই জীবানু আছে, তবে আপনি আপনার নিজের ও অন্যের সুরক্ষার জন্য লাইজল বা ফিনাইল দিয়া জিনিস টি পরিষ্কার করে ফেলুন। সেনিটাইজার বা অ্যালকোহল দেওয়া হ্যান্ডবার দিয়ে হাত মুখ পরিষ্কার করুন অথবা হ্যান্ডওয়াস বা সাবান দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। কখনো নিজের চোখে মুখে অপরিষ্কার হাতে ছোঁবেন না।

Read more:  নারীদের চিকিৎসা নারী ডাক্তার দিয়ে করানো ভালো?

 

About shakib

Hello! I’m Shakib. Known as Mainul Hasen Shakib on social media. I always try to do something new using my acquired experience.

View all posts by shakib →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *